Latest News

রাজনীতি
জাতীয়

আন্তর্জাতিক

বিনোদন

খেলাধুলা

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

সর্বশেষ

স্পেনের কানারিয়ায় ‘করোনাভাইরাস’ এর প্রথম রোগী

লা গামেরার এ হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিকে।
সাহাদুল সুহেদ:  স্পেনে ‘করোনাভাইরাস’-এ আক্রান্ত প্রথম রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। গতকাল (৩১ জানুয়ারি) আটলান্টিক সাগরের তীরবর্তী স্পেনের কানারিয়া দ্বীপপুঞ্জের অন্তর্ভুক্ত লা গমেরা দ্বীপে একজন জার্মান পর্যটকের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়  নিশ্চিত করেছে। রোগীকে স্থানীয় হাসপাতাল নুয়েস্ত্রা সিনিয়োরা দে গুয়াদালুপেতে ভর্তি করা হয়েছে।
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম রোগীর খবর নিশ্চিত করলেও স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এতে আতঙ্ক হওয়ার কিছু নেই। এদিকে গতকাল শুক্রবার (৩১ জানুয়ারি) স্পেনের ২১ জন নাগরিককে চীনের উহান থেকে স্পেনে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। তাদের বহনকারী বিমান স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে মাদ্রিদের টররেজন দে আরদেজ বিমানবন্দরে পৌঁছে। তাদেরকে সাময়িক সময়ের জন্য মাদ্রিদের গমেজ উলা মিলিটারি হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, চীনে মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫৮তে। চীনের বাইরে ২২টি দেশে ১০০টি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মাদ্রিদে মরহুম শামীমের জানাযার নামাজ আজ

এসবিএন ডেস্কস্পেনের মাদ্রিদে মরহুম মানিক মোজাফফর শামীম এর জানাযার নামাজ আজ শুক্রবার (৩১ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা লাভাপিয়েস সংলগ্ন বাংলাদেশি মসজিদ বায়তুল মোকাররম জামে মসজিদ-এ আসরের নামাজের পর জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।
মানিক মোজাফফর শামীম গত ২৯ জানুয়ারি স্থানীয় সময় ভোরে মাদ্রিদের মনক্লোয়া হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন (ইন্না লিল্লাহি...রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫০ বছর। বাংলাদেশে তার বাড়ি বিক্রমপুর মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরে।  শামীমের মৃত্যুতে মাদ্রিদে বিক্রমপুর মুন্সিগঞ্জ এলাকার প্রবাসীদের পাশাপাশি স্থানীয় বাংলাদেশি কমিউনিটিতেও শোকের ছায়া নেমে আসে। বাংলাদেশি কমিউনিটির পক্ষ থেকে মরহুমের লাশ বাংলাদেশে প্রেরণের জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

মাদ্রিদে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলায় দুই লক্ষাধিক দর্শনার্থী

সাহাদুল সুহেদস্পেনের মাদ্রিদে সম্পন্ন হয়েছে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা ‘ফিতুর ২০২০’। ২২ জানুয়ারি থেকে ২৬ জানুয়ারি পর্যন্ত পাঁচ দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত ‘ফিতুর’ এর ৪০তম আসরে বিশ্বের ১৬৫টি দেশের ১১ হাজার ৪০টি পর্যটন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে। ‘ফেরিয়া দে মাদ্রিদ’ নামক আন্তর্জাতিক ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত এ মেলায় রেকর্ড সংখ্যক ২ লক্ষ ৫৫ হাজার দর্শনার্থী উপস্থিত হয়েছেন।
বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত ভ্রমনপ্রিয় পর্যটকদের কাছে নিজেদের  দেশের শিল্প, সংস্কৃতির পাশাপাশি পর্যটন স্থানগুলোকে পরিচয় করিয়ে দেয়া ও তাদের দেশ ভ্রমণে আগ্রহ সৃষ্টি করতে ‘ফিতুর’-এ ট্যুর অপারেটররা পাঁচদিন নানা কৌশলী ব্যবস্থার আয়োজন করেন। প্যাভিলিয়নের সামনে নিজস্ব সংস্কৃতির পোষাক পরিধান করে নৃত্য করতে কিংবা গান পরিবেশন করতেও দেখা গেছে। মেলায় কাতার এয়ারলাইন্স, ইবেরিয়া এয়ারলাইন্স ভ্রমণে তাদের নিত্য নতুন সেবা দর্শনার্থীদের সামনে তুলে ধরে। স্পেনের রেল যান রেনফে দর্শনার্থীদের জন্য নানা অফার এর ব্যবস্থা করে। পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের প্যাভিলিয়নে দর্শনার্থীদের জন্য নানা উপহার সামগ্রী রাখা হয়।

‘ফিতুর ২০২০’ এ প্রতিদিনই ছিল বিভিন্ন বিষয়ের উপর সেমিনার, যেখানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের পাশাপাশি পর্যটন বিশেষজ্ঞরা বক্তব্য দেন। প্রতিবারের মতো এবারের পর্যটন মেলায়ও  ‘পর্যটকদের স্বাস্থ্য’ বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়। ‘ফিতুর হেল্থ’ নিয়ে ছিলো আলাদা প্যাভিলিয়ন ও সেমিনারের ব্যবস্থা। পর্যটন সংশ্লিষ্ট বিশ্বের বাণিজ্যিক তথ্য পাওয়া, পর্যটকদের মধ্যে নেটওয়ার্কিং সৃষ্টি করা, পর্যটন পণ্যের বৈশিষ্ট বিশ্লেষণ ও তুলনা, শিল্প বিবর্তন এবং প্রবণতা সম্পর্কিত তথ্যগুলোকে ‘ফিতুর’ এ প্রাধাণ্য দেয়া হয়।
বাংলাদেশের পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমার, ভারত এর পাশাপাশি  দক্ষিণ এশিয়া থেকে পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, ভুটান, মালদ্বীপ অংশগ্রহণ করেছে। আন্তর্জাতিক ট্যুরিজম সেক্টরে ‘গ্লোবাল মিটিং পয়েন্ট’ হিসেবে খ্যাত ‘ফিতুর’-এ বাংলাদেশের অংশগ্রহণ অনিয়মিত। বাংলাদেশ  ২০১২, ২০১৩, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালে মোট চারবার এ ‘ফিতুর’-এ অংশগ্রহণ করেছে।
এ প্রসঙ্গে স্পেনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সেলর রেদোয়ান আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করে আগামী ২০২১ সালের ‘ফিতুর’-এ যাতে বাংলাদেশ অংশগ্রহণ করে, সে চেষ্টা আমরা করবো।
প্রসঙ্গত, ১৯৮০ সাল থেকে প্রতিবছর স্পেনের মাদ্রিদে ‘ফিতুর’ নামে এ আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। বিশ্বের শতাধিক দেশের পর্যটন শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান, ট্যুর অপারেটর, পর্যটনবিষয়ক গবেষক, সাংবাদিক ও লেখকরা উপস্থিত থাকেন এ মেলায়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের লক্ষাধিক দর্শনার্থীর কাছে নিজেদের দেশের পর্যটন শিল্পকে পরিচয় কিংবা পৌঁছে দেয়ার সুযোগ নিতে তাই ‘ফিতুর’ এ অংশগ্রহণ করে শতাধিক দেশের পর্যটন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান।


মুক্তমত

যোগাযোগ

Editor:Sahadul Suhed, News Editor:Loukman Hossain E-mail: news.spainbangla@gmail.com